কিশোর কিশোরীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতে তাদের সচেতন করতে হবে: আবুল মনসুর আসজাদ

জুন ০২ ২০২২, ১৭:২৬

সিলেট সদর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার আবুল মনসুর আসজাদ বলেছেন, কিশোর-কিশোরীদের সচেতনতা সৃষ্টি করার দায়িত্ব অভিভাবক, শিক্ষক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের। বয়:সন্ধিকালে শিশুরা বাবা-মা অথবা তাদের শিক্ষকদের সাথে নিরাপদ যৌন জীবন ও প্রজনন স্বাস্থ্য নিয়ে তেমন কোন কথা বলেনা। অন্যদিকে অভিভাবকরাও বিষয়গুলো সম্পর্কে তাদের সচেতন করেন না। তাই আমাদের সবচেয়ে বড় প্রয়োজন মানসিকতার পরিবর্তন করা। কিশোর কিশোরীদের তাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সচেতন করতে হবে। পরিবার পরিকল্পনা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে কিশোর কিশোরীদের স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে যাচ্ছে। স্বাস্থ্য কেন্দ্রে কিশোর কিশোরীদের এসে সেবা নিতে হবে। তাহলে তারা সুস্থ্য থাকতে পারবে।

(২ জুন) বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় সিলেট সদর উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের হলরুমে রিলায়েন্ট উইমেন ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন আর.ডব্লিউ.ডি.ও এর আয়োজনে ও প্ল্যান ইন্টান্যাশনাল বাংলাদেশ এর সহযোগিতায় কৈশোর বান্ধব সেবা কেন্দ্রের প্রদত্ত সেবার মান উন্নয়ন এর লক্ষে জেলা পর্যায়ে সংম্লিষ্ট সেবা প্রদানকারীদের নিয়ে কমিউনিটি পর্যায় স্কোর কার্ড ফলাফল প্রদর্শন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

ওয়াই মুভস্ প্রকল্প কর্মকর্তা মো. জাহিদুল ইসলাম রশিদ এর পরিচালনায় আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ৪নং খাদিমপাড়া ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার বদরুল ইসলাম আজাদ, ৪নং খাদিমপাড়া ইউনিয়নের ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার সাজেদা বেগম।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন খাদিমপাড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার  কল্যাণ কেন্দ্রে এস এ সি এম ও নাজিয়া সুলতানা, এফডব্লিউবি চায়না তালুকদার, এফপিআই তাপসি রানী রায়, হাটখোলা ইউনিয়ন এর  এফডব্লিউবি মাজিদা বেগম,  খাদিমপাড়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র এর এফডব্লিউএ রুপালী সেন ও গীতা রানী দেবী, উপজেলা সদর পরিবার পরিকল্পনা সহকারী জোস্না রানী, ওয়াই মুভস্ প্রকল্প আর ডব্লিউডিও এর একাউন্স ও এডমিন অফিসার মো. মহসিন রেজা। কিশোর কিশোরীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, এনসিটিএফ সভাপতি অষ্টমণি লোহার, সহ-সভাপতি সমীক লোহার, ভলান্টিয়ার দিবস বিশ্বাস, সেবা নায়েক, শ্রাবন্তী নায়েক সহ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিস এর কমকর্তাবৃন্দ। বিজ্ঞপ্তি