বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:১১ অপরাহ্ন

News Headline :
কুড়িগ্রামে ৩টি ইট ভাটায় পরিবেশ অধিদপ্তর অভিযান চালিয়ে ১২ লক্ষ টাকা জরিমানা বন্ধুদের ছু রি ঘা তে প্রাণ হারিয়েছেন রাইসুল মুঠোফোন দিয়ে হত্যাকারীদের শনাক্ত করেন চাদগাঁও থানার পুলিশ মাহিকে ইঙ্গিত করেই স্বামী রকিব সরকার সামাজিকমাধ্যমে একটি পোস্ট দেন নেপালের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ে বাংলাদেশের মেয়েরা মাদকসহ ৩ মাদকব্যবসায়ী আটক করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন পুলিশ সদস্যদের মাদক সেবনের প্রমাণ পেলেই চাকরি থাকবে না-পুলিশের মহাপরিদর্শক উপশহরের এক গৃহবধূর গলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ চিকিৎসকদের সুরক্ষার বিষয় দেখার প্রথম দায়িত্ব হচ্ছে আমার-স্বাস্থ্যমন্ত্রী গণতন্ত্র মঞ্চের বিক্ষোভ মিছিলে দুই দফা লাঠি চার্জ করেছে পুলিশ
গৌহাটিতে ভারত বাংলাদেশের সম্পর্ক একাত্তরের আলোকে শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

গৌহাটিতে ভারত বাংলাদেশের সম্পর্ক একাত্তরের আলোকে শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

গৌহাটিতে ভারত বাংলাদেশের সম্পর্ক একাত্তরের আলোকে শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।

আজ (২৬ নভেম্বর) ভারতের আসামের রাজধানী গৌহাটির অসম সাহিত্য সভার রাধাগোবিন্দ বরুয়া সভাকক্ষে সম্প্রীতি বাংলাদেশ এবং ব্যতিক্রম, গৌহাটির যৌথ উদ্যেগে, ‘ভারত বাংলাদেশের সম্পর্ক একাত্তরের আলোকে’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন সম্প্রীতি বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় কমিটির আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা পীযুষ বন্দ্যোপাধ্যায়, সদস্য সচিব ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারভেনশনাল হেপাটোলজি ডিভিশন প্রধান অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল, গৌহাটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের সহকারী হাইকমিশনার জনাব রুহুল আমিন, আসামের বিশিষ্ট শিক্ষাবীদ ড. উষারঞ্জন ভট্টাচার্য, অধ্যাপক অমল কান্তি রাহা এবং ড. তিমির দে।

অনুষ্ঠানে বক্তারা একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে ভারত এবং আসামবাসীর অবদানের কথা শ্রদ্ধাভরে স্মরন করেন। তারা বাংলাদেশ এবং ভারতের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগীতা এবং ঘনিষ্ঠ যোগাযোগের গুরুত্ব আরোপ করেন। এই দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যেকার বর্তমান সম্পর্ককে পৃথিবীর যে কোন প্রতিবেশি দেশের জন্য তারা রোল মডেল হিসেবে আখ্যায়িত করেন। এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য বক্তারা সম্প্রীতি বাংলাদেশ এবং ব্যতিক্রম, গৌহাটিকে অভিনন্দন জানিয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে ভবিষ্যতে এ ধরনের অনুষ্ঠান আরো বেশি বেশি আয়োজনের মাধ্যমে বাংলাদেশ এবং আসামের সাধারন মানুষের মধ্যে পারস্পরিক সৌহাদ্য এবং সংঝোতা আরো বৃদ্ধি পাবে। আসাম রাজ্যের বাসিন্দাদের সাথে বাংলাদেশের মানুষের যে ঐতিহাসিক যোগাযোগ তা একাত্তরে বাংলাদেশের শরনার্থীদের জন্য যেমন আশির্বাদ হিসেবে দেখা দিয়েছিল, তেমনি ভবিষ্যতে এ ধরনের সহযোগীতা অব্যহত থাকলে তা এই অঞ্চলের মানুষের বিকাশেও সহায়ক হবে।

৩২৩ বার পড়া হয়েছে।





© All rights reserved © risingsylhet.com
Design BY Web Home BD
ThemesBazar-Jowfhowo