ছাতকে ব্যবসায়ীদের কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে বিদেশে গ্রামীন ফোনের ডিস্ট্রিবিউটর

মে ১২ ২০২২, ১৬:৫১

রাইজিং সিলেট ডেস্ক: ছাতকে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে প্রায় তিন কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে বিদেশে পাড়ি জমিয়েছে ফারুক আহমদ। তিনি লামাকাজি চানপুর এলাকার গোলাম মোস্তফার ছেলে।

ফারুক আহমদ প্রতারণা করে ব্যবসায়ীদের নিকট থেকে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়েছে। লেখাপড়া ও ব্যবসায়ীক কারণে ছাতকে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছিলেন ফারুক আহমদ।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, আত্মীয়তার সুবাদে ফারুক আহমদ ছাতকেই অবস্থান করে ছাতক ডিগ্রি কলেজে পড়ালেখা শেষ করে ২০০৩ সালে শহরে গ্রামীণ ফোনের ডিস্ট্রিবিউটরের দায়িত্ব নেয়। শহরে গ্রামীণফোন ডিস্ট্রিবিউটরের বিলাসবহুল অফিস ছিলো তার। এতে শহর এলাকার ব্যবসায়ীদের সাথে পরিচিতি ও সখ্যতা গড়ে উঠে। শহরের পুরাতন বাসস্ট্যান্ডে ছিল মেসার্স ফারুক আহমদ নামে সিঙ্গেল, বোল্ডার, বালু, চুনাপাথর আমদানি ও রপ্তানি ব্যবসার তার আরেকটি অফিস। ওই প্রতিষ্ঠানের দোহাই দিয়ে ব্যবসায়ীদেরকে চুনাপাথর সাপ্লাই দেয়ার কথা বলে সে অগ্রিম বাবদ প্রায় তিন কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে যায়। পাথর- চুনা পাথরের ব্যবসা সে কিছুদিন ছাতকে করেছে বলে জানিয়েছেন একাধিক ব্যবসায়ী।

এ ব্যবসার প্রথমদিকে সে তার চতুরতা দিয়ে এখানের চুনাপাথর ব্যবসায়ীদের মন জয় করে তাদের কাছ থেকে অগ্রিম টাজা নিয়েছে। অগ্রাইম টাকা নেয়ার পর সে আর কোন ব্যবসায়ীকে চুনাপাথর সাপ্লাই দেয়নি।

ভুক্তভোগী রাসেল মাহমুদ, সামছুল হক জানান, চুনাপাথর দেয়ার কথা বলে ফারুক আহমদ তাদের কাছ থেকে অগ্রিম টাকা নেয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যবসায়ী জানান, শহরের ২৫/৩০ জন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে চুনাপাথর দেয়ার নামে প্রায় তিন কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ফারুক আহমদ। কিন্তু সময়মতো কাউকে চুনাপাথর বা টাকা ফেরত নেয়নি। টাকা নেয়ার পর সে ছাতক শহরের বাসা ও ছেড়ে দেয়। সিলেট নগরীতে একটি বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস শুরু করে। সিলেটের বাসায় ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা তার সাথে যোগাযোগ করলে টাকা ফেরত দেয়ার কথা বলে এবং অনেককে বিভিন্ন ব্যাংকের চেক ও দিয়েছেন তিনি। এভাবে করতে করতে এক সময় পালিয়ে যায় সে। টাকা আদায়ের জন্য ভুক্তভোগীরা তার সিলেটের বাসায় যোগাযোগ করে বাসাটি তালাবদ্ধ পান। পরে তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে কল দিলে তা বন্ধ পান। সম্প্রতি ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন ফারুক আহমদ বিদেশে পালিয়ে গেছে।

 

 

রাইজিংসিলেট / আল-আমিন