• ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ , ১৫ই আশ্বিন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ , ১৫ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৫ হিজরি

ধর্ষণের পর হত্যা করে শিশুর লাশ গুম

risingsylhet.com
প্রকাশিত জানুয়ারি ৯, ২০২৩
ধর্ষণের পর হত্যা করে শিশুর লাশ গুম

রাইজিংসিলেট- ধর্ষণের পর হত্যা করে শিশুর লাশ গুম,শুক্রবার সন্ধ্যায় বাড়ির পাশের চরআন্ডা বাজারে মোবাইলে টাকা রিচার্জ করতে যায় লামিয়া। ফেরার পথে অটোরিকশা চালক আল আমিন হাওলাদার তাকে ডেকে নেয় বিলের মধ্যে। এরপর যৌন নির্যাতন শেষে শ্বাসরোধে হত্যা করে। স্বজনদের অভিযোগ এটা।

ধর্ষণের পর এগারো বছরের শিশু লামিয়াকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। এরপর লাশ গুম করতে ফেলে দেয়া হয় বুড়াগৌড়াঙ্গ নদীতে। এমন চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চরআন্ডা গ্রামে। নদীর পাড়ে মায়ের নির্বাক কান্না।

বিভিন্ন আলামত এবং আল-আমিনের আচরণে সন্দেহ হলে স্থানীয়রা তাকে আটক করে পুলিশে দেয়।

রাঙ্গাবালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুরুল ইসলাম মজুমদার জানায়, আল-আমিনকে আটকের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে ধর্ষণ এবং হত্যার কথা স্বীকার করেছে। লাশ গুম করার জন্য নদীতে ফেলার কথাও জানায় সে। নিহত শিশুর লাশ উদ্ধারের জন্য অভিযুক্ত আল-আমিনকে নিয়ে নদীতে অভিযান চালানো হচ্ছে। তার দেখানো স্পটে জাল ফেলে তল্লাশি চলছে।

এদিকে শিশু লামিয়ার হত্যাকারীর বিচারের দাবিতে রোববার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে স্বজন ও এলাকাবাসী। ঘণ্টাব্যাপী এ কর্মসূচি থেকে ধর্ষকের ফাঁসির দাবি তোলা হয়।

এছাড়া অপরাধীকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিতের মাধ্যমে সমাজ থেকে নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধে কঠোর হওয়ার আহ্বান সচেতন মহলের।

বার পড়া হয়েছে।