প্রস্টেট ক্যানসার রোগের প্রাথমিক লক্ষণগুলি সম্পর্কে সতর্ক

মার্চ ২৩ ২০২২, ২১:১৬

সংগৃহীত ছবি

রাইজিং ডেস্ক:: বিশেষত, পঞ্চাশ পেরিয়ে গেলে, ও পরিবারে এই রোগের ইতিহাস থাকলে নিতে হবে অতিরিক্ত সতর্কতা।প্রস্টেট ক্যানসার পুরুষদের মধ্যে অন্যতম প্রধান একটি ক্যানসার। অথচ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সময় মতো চিহ্নিত করা গেলে ৯৬ শতাংশর ক্ষেত্রেই বাঁচানো যায় রোগীর প্রাণ। তাই এই রোগের প্রাথমিক লক্ষণগুলি সম্পর্কে সতর্ক থাকা আবশ্যক।

প্রস্রাব নিয়ন্ত্রণে সমস্যা

প্রস্রাব ধরে রাখতে না পারা কিংবা প্রস্রাব পেলে ঠিক ভাবে মূত্রত্যাগ করতে না পারা এই রোগের অন্যতম প্রাথমিক লক্ষণ। পাশাপাশি এই রোগে বড় হয়ে যেতে পারে মূত্রস্থলীর প্রস্টেট গ্রন্থির আয়তনও।

বার বার মূত্র ত্যাগের প্রবণতা

বার বার প্রস্রাব পাওয়া প্রস্টেট ক্যানসারের লক্ষণ হতে পারে। বিশেষত, রাতের দিকে বার বার মূত্রত্যাগের প্রবণতা দেখা যায় আক্রান্তের। প্রস্রাব ত্যাগের প্রবণতায় যে কোন রকম পরিবর্তন এলেই বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন।

মূত্রত্যাগের সময়ে ব্যথা

মূত্রত্যাগের সময়ে ব্যথা হওয়া মোটেই ভাল লক্ষণ নয়। মূত্রত্যাগের সময়ে ব্যথা বা জ্বালা হওয়া একাধিক রোগের লক্ষণ হতে পারে। প্রস্টেট ক্যানসারও তার ব্যতিক্রম নয়।

রক্তপাত

মূত্রের সঙ্গে রক্তপাত হওয়াকে বিজ্ঞানের ভাষায় বলে ‘হিমাচুরিয়া’। মূত্রের সঙ্গে রক্তপাত হলে বা মূত্রের রং লাল, গোলাপি কিংবা গাঢ় বাদামি হয়ে গেলে অবিলম্বে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন।

পিঠ ও কোমরে যন্ত্রণা

কোমরের নীচের দিকে একাধিক কারণে ব্যথা হতে পারে। তাই এই সমস্যা অবজ্ঞা করার প্রবণতা বিরল নয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, পিঠের নীচের দিক, কোমর, নিতম্ব, কুচকি ও থাইয়ের ব্যথা প্রস্টেট ক্যানসারের লক্ষণ হতে পারে। বিশেষত, বয়স্কদের ক্ষেত্রে এই উপসর্গটি অনেক বেশি দেখা যায়।