রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০১:০৪ পূর্বাহ্ন

News Headline :
জলপ্রপাত দেখতে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় নি হ ত নিহা পায়ুপথে ছয় ইঞ্চি ডাব,অস্ত্রোপচারে ওই ডাব অপসারণ রাজনগরে অগ্নিকান্ডে চারটি দোকান ও একটা বাসা বাড়ি পুড়ে ছাই পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে ঈদের ছুটিতে পর্যটকের ঢল নেমেছে বিএনপি তথাকথিত গুম-নির্যাতনের কাল্পনিক তথ্য দিয়ে দেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করছে-সেতুমন্ত্রী জাফলংয়ে নারী ইভটিজিংয়ের শিকার এক তরুণকে দুই বছরের কারাদণ্ড দুই কিশোরকে মুচলেকা যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান রাজ্যের ওয়ারেন শহরে পুলিশের গুলিতে সিলেটের যুবক নি হ ত বিশ্বনাথে ‘দাদু ভাই ছইল মিয়া ফাউন্ডেশন’র পক্ষ থেকে ঈদ পুর্ণমিলনী সভা বিয়ে বাড়িতে কনে পক্ষের হামলায় বরের দুলাভাই নি হ ত শরণার্থী ও অভিবাসন বিষয়ক নতুন নীতির প্রস্তাব পাস
ভোলা শহর জুরে শীতের পিঠা বিক্রির ধুম

ভোলা শহর জুরে শীতের পিঠা বিক্রির ধুম

মোঃ হোসেন, ভোলা প্রতিনিধি- ভোলা শহর জুরে ফুটপাতের ওলি-গলিতে জমে উঠেছে শীতের ভাপা ও চিতাই পিঠা বিক্রির উৎসব, সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে শীতের বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলে পিঠা বিক্রি। ভোলার ওলি গলিতে পিঠা বিক্রির দোকান গুলোতে পিঠার স্বাদ নিতে ভিড় জমান বিভিন্ন বয়সের নানা শ্রেনী পেশার মানুষ।সরোজমিনে গিয়ে দেখা মিলে, সদর রোডের কালীনাথ বাজার থেকে শুরু করে বাংলা স্কুল মোড় নতুন বাজার, সদর হাসপাতালের সামনে, আরও বিভিন্ন ওলি-গলিতে রাস্তার উপর ও ফুটপাতের মোড়ে মোড়ে চলছে ভাপা পিঠা বিক্রির উৎসব।

১৯ নভেম্বর (রবিবার) বিশেষ করে সন্ধ্যার পরেই জমে উঠে এ সব পিঠা বিক্রির, নানা রকম আয়োজন বেশির ভাগ দোকানেই পিঠা বিক্রি করছেন নিম্নবিত্ত পরিবারের পুরুষে।

পিঠা বিক্রেতারা বলেন, আমরা সারাদিন বিভিন্ন কাজে ব্যাস্ত থাকি, অবসর সময় বাড়তি আয়ের জন্য বিকাল বেলা পিঠা বানানো নিয়ে ব্যাস্ত হয়ে পড়ি। নতুন চালের গুড়ো ও নতুন খেজুরের গুড় দিয়ে খুব যত্ন সহকারে তৈরী করা হয়। ক্রেতাদের জন্য ভাপা পিঠা। পিঠাকে আরও সুস্বাদু করার জন্য নারকেল ও গুড় ব্যাবহার করা থাকি। ভাপা পিঠা ছাড়াও ক্রেতাদের জন্য চিতল (চিতাই) পিঠা তৈরী করা হচ্ছে। এসব পিঠা প্রতি পিচ ১০ টাকা করে বিক্রি করেন। প্রতিদিন ০৮ থেকে ১০ কেজি পরিমান চালের পিঠা বিক্রি হয় বলে জানান, জিয়া সুপার মার্কেট এর বিপরীতের দোকান দার। শীতের চিতল (চিতাই) পিঠার সঙ্গে বাড়তি হিসেবে মরিচ, সরিষা, সুটকি ও ধনেপাতার ভর্তা ফ্রি দেওয়া হয়।

পিঠা তৈরির বিষয় জানতে চাইলে পিঠা বিক্রেতা মোঃ বিল্লাল, পিঠা তৈরীর একটি পাতিল ও ঢাকনা ব্যাবহার করা হয়। জলন্ত চুলার উপর পাতিলে পানি দিয়ে ঢাকনার মাঝখানটা ছিদ্র করে পাত্রের মুখে দিতে হয়। এ সময় ঢাকনার চারপাশে আটা, চালের গুড়া ও কাপড় দিয়ে শক্ত করে মুড়ে দেওয়া হয়। যাতে করে গরম পানির ভাব বের হতে না পারে। পরে ছোট একটি গোল পাত্রের মধ্যে চালের গুড়া, নারিকেল ও গুড় মিশিয়ে পাতলা কাপড়ের জরিয়ে ঢাকনার মুখে রাখা হয়। পানির গরম তাপেই নিমিষেই সিদ্ধ হয়ে যায় নতুন চালের ভাপা পিঠা।

পিঠা খেতে আসা ইউ সি বি ব্যাংকের কর্মকর্তা নেওয়াজ শরীফ বলেন, সব ধরনের লোকজন আমাদের শীতের পিঠার দোকান গুলোতে দেখা পিঠা খেতে আসে। আমি মাঝে মধ্যে আসি আবার পিঠা ক্রেতা বলে কেউ কেউ বাড়িতে ছেলে মেয়েদের জন্য ও পিঠা কিনে নিয়ে যান।

ব্যাস্ততার কারণে বাড়িতে পিঠা খাওয়ার সময় হয়ে ওঠে না এমনটাই ধারণা পিঠা ক্রেতাদের। তাই এখানে সেই পিঠার স্বাদ নেয়ার চেষ্টা করছে।

১৮৭ বার পড়া হয়েছে।





© All rights reserved © risingsylhet.com
Design BY Web Home BD
ThemesBazar-Jowfhowo