যেকোনো দুর্যোগে পুলিশবাহিনী প্রথম সাড়া দিয়ে থাকে : অতিরিক্ত ডিআইজি

জুন ২৪ ২০২২, ২৩:৩৮

ছবি-প্রতিনিধি

জামালগঞ্জ প্রতিনিধি :: সিলেট রেঞ্জ অফিসের অতিরিক্ত ডিআইজি নূরুল ইসলাম বলেন, যেকোনো দূর্যোগে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী প্রথম সারা দিয়ে থাকে। এবারের বন্যা অতীতের সমস্ত রেকর্ড অতিক্রম করেছে। সিলেট বিভাগের প্রতিটি উপজেলা বন্যা কবলিত।

বিশেষ করে সুনামগঞ্জ জেলায় এর প্রভাব পড়েছে বেশি। জামালগঞ্জ উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নের বন্যা কবলিত পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী। আজ সারাদিন আমরা জামালগঞ্জ উপজেলায় ৪ হাজার পরিবারের মাঝে ত্রাণ ও ঔষধের পাশাপাশি গোখাদ্য বিতরণ করেছি। জামালগঞ্জ উপজেলা হাওর বেষ্টিত হওয়ায় বন্যার সুযোগে চোর ডাকাতের উপদ্রব হতে পারে।

আপনারা এব্যাপারে সতর্ক থাকবেন, রাতে পুলিশ বাহিনীর টহল থাকবে। ত্রাণ বিতরণ কালে কেউ অনিয়ম করলে কঠোর ভাবে অভিযান পরিচালনা করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। গতকাল ২৪ জুন শুক্রবার জামালগঞ্জের ফেনারবাক ইউনিয়নে আশ্রয় কেন্দ্রে ও বিভিন্ন গ্রামে ত্রাণ বিতরণ কালে তিনি একথা বলেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ,সিলেট রেঞ্জ অফিসের পুলিশ সুপার জেদান আল মূসা,জামালগঞ্জ থানার ওসি মীর মোঃ আব্দুন নাসের, ওসি ডিবি সুনামগঞ্জ ইকবাল বাহার, ফেনারবাক ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কাজল চন্দ্র তালুকদার,
শ্রীমঙ্গল উপজেলার সমাজকর্মী জাকির উদ্দীন আহমেদ সাহেদ,রয়েল ক্লাব লিমিটেড উত্তরা ঢাকা এর সভাপতি জহির রায়হান,জামালগঞ্জ রিপোর্টার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন, রয়েল ক্লাব লিমিটেড উত্তরা ঢাকা এর নির্বাহী সদস্য কবির হোসেন সাগর, নজরুল ইসলাম, অরুন মাহবুব আলম, এস এম সেলিম প্রমূখ।

উল্লেখ্য সিলেট রেঞ্জ অফিসের সার্বিক সহযোগিতায় শ্রীমঙ্গল উপজেলার সমাজকর্মী সাহেদ এর তত্ত্বাবধানে রয়েল ক্লাব লিমিটেড উত্তরা ঢাকা এর অর্থায়নে উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নে চাউল ডাল, সাবান, দুধ, মোমবাতি,আলু, সয়াবিন তেল,লবন,চিড়া,গুড়,বিস্কুট, চকলেট, ওরস্যালাইন, ঔষধ সহ প্রায় ৪ হাজার প্যাকেট ত্রাণের পাশাপাশি কাপনের কাপড় এবং গবাদিপশুর খাদ্য বিতরণ করা হয়।