রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন

News Headline :
জলপ্রপাত দেখতে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় নি হ ত নিহা পায়ুপথে ছয় ইঞ্চি ডাব,অস্ত্রোপচারে ওই ডাব অপসারণ রাজনগরে অগ্নিকান্ডে চারটি দোকান ও একটা বাসা বাড়ি পুড়ে ছাই পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে ঈদের ছুটিতে পর্যটকের ঢল নেমেছে বিএনপি তথাকথিত গুম-নির্যাতনের কাল্পনিক তথ্য দিয়ে দেশের জনগণকে বিভ্রান্ত করছে-সেতুমন্ত্রী জাফলংয়ে নারী ইভটিজিংয়ের শিকার এক তরুণকে দুই বছরের কারাদণ্ড দুই কিশোরকে মুচলেকা যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগান রাজ্যের ওয়ারেন শহরে পুলিশের গুলিতে সিলেটের যুবক নি হ ত বিশ্বনাথে ‘দাদু ভাই ছইল মিয়া ফাউন্ডেশন’র পক্ষ থেকে ঈদ পুর্ণমিলনী সভা বিয়ে বাড়িতে কনে পক্ষের হামলায় বরের দুলাভাই নি হ ত শরণার্থী ও অভিবাসন বিষয়ক নতুন নীতির প্রস্তাব পাস
সিলেটে বিএনপির মাঠপর্যায়ের দুজন নেতা বলেন

সিলেটে বিএনপির মাঠপর্যায়ের দুজন নেতা বলেন

সিলেটে বিএনপির মাঠপর্যায়ের দুজন নেতা বলেন, মূলত গত ২৯ অক্টোবর বিএনপির সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালনের পর থেকে সিলেটের বিএনপির নেতা-কর্মীদের ওপর চাপ ক্রমেই বাড়ছে। এরই মধ্যে হরতাল ও অবরোধ চলাকালে সহিংসতার অভিযোগ এনে পুলিশ বিএনপি ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। প্রতিদিন রাতে পুলিশ গ্রেপ্তারে অভিযান চালানোয় অনেকে গা ঢাকা দিয়েছেন।

অবরোধে সহিংসতা ও ভাঙচুর করায় সিলেটে মহানগরের ৬ থানায় ১৭টি মামলা করা হয়েছে। এসব মামলার দুটি বাদে সবকটি মামলাই করেছে পুলিশ। মামলয় বিএনপি-জামায়াতের ৩৮৬ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে আসামি করা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞতনামা আসামি করা হয়েছে আরও ৬৬০ থেকে ৮১২ জনকে। এ পর্যন্ত ৫৪ জন নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানায় পুলিশ। আর গ্রেফতার থেকে বাচতে ঘরছাড়া রয়েছেন বিএনপির অসংখ্য নেতা–কর্মী।

বিএনপির দাবি, পুলিশ মামলার অজুহাতে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বাসাবাড়িতে রাতে তল্লাশি চালাচ্ছে। অজ্ঞাতনামা আসামি অসংখ্য থাকায় নেতা-কর্মীদের অনেকে গ্রেফতার এড়াতে বাড়িছাড়া হয়ে পড়েছেন। প্রতিদিন রাতে পুলিশ গ্রেপ্তারে অভিযান চালানোয় অনেকে গা ঢাকা দিয়েছেন। মামলায় এজাহারভুক্ত আসামি না হওয়া সত্ত্বেও গণহারে বিএনপির নেতা-কর্মীদের বাড়িতে তল্লাশি চালানোর নামে আতঙ্ক ছড়ানো হচ্ছে। পরিবারের সদস্যরাও আতঙ্কে আছেন।

মহানগর পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ২৯ অক্টোবরের পর গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সিলেট মহানগরে হরতাল-অবরোধ চলাকালে ৪টি গাড়িতে আগুন দেওয়ার পাশাপাশি ৬টি গাড়ি অবরোধ-সমর্থকেরা ভাঙচুর করেছেন। সহিংসতা থামাতে গিয়ে ১০ জন পুলিশ সদস্য আহত হন। গ্রেপ্তার হওয়া ৫৪ জনের মধ্যে ২৩ জন পদবিধারী নেতা রয়েছেন। এঁদের মধ্যে বিএনপির নেতা ২১ এবং জামায়াতের নেতা ২ জন।

দায়ের হওয়া ১৭টি মামলার মধ্যে অবরোধ চলাকালে গাড়ি ভাঙচুর করায় দুজন ব্যক্তি ২টি মামলা করেন। বাকি মামলাগুলো পুলিশ করেছে। মামলাগুলোর মধ্যে কোতোয়ালি থানায় ৫টি, জালালাবাদ থানায় ১টি, বিমানবন্দর থানায় ১টি, দক্ষিণ সুরমা থানায় ৬টি, শাহপরান থানায় ১টি এবং মোগলাবাজার থানায় ৩টি দায়ের হয়েছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপকমিশনার মো. আজবাহার আলী শেখ পিপিএম জানান, পুলিশ মামলায় অভিযুক্ত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারেই কেবল অভিযান চালাচ্ছে। কোনো নিরীহ বা নিরপরাধ ব্যক্তিকে হয়রানি করা হচ্ছে না। ভয়ভীতি বা আতঙ্ক তৈরি করা পুলিশের কাজ নয়। পুলিশ আইনশৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে তৎপর আছে।

১২৮ বার পড়া হয়েছে।





© All rights reserved © risingsylhet.com
Design BY Web Home BD
ThemesBazar-Jowfhowo